যশোরে ৩৬ কোটি টাকা মূল্যের ৭৫ কেজি সোনাসহ তিন পাচারকারী আটক

ভারতে পাচারের সময় যশোরের শার্শার শিকারপুর সীমান্তে চালানো অভিযানে প্রায় ৭৫ কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড(বিজিবি)। এসব স্বর্ণের মূল্য প্রায় ৩৬ কোটি টাকা। এসময় মহিউদ্দিন(৩৫) নামে এক পাচারকারীকে আটক করে বিজিবি। গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চালানো অভিযানে এসব স্বর্ণ উদ্ধার করা হয়।

বিজিবি জানিয়েছে, গোপান সংবাদের ভিত্তিতে শার্শার শিকারপুর সীমান্তের ২৯ নাম্বার মেইন পিলারের পাশে অভিযান চালায় ৪৯ ব্যাটালিয়নের বিজিবি সদস্যরা। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পাচারকালে ৭৩ কেজি ওজনের ৬২৪টি স্বর্ণের বারসহ মহিউদ্দিনকে আটক করা হয়। আটক স্বর্ণের মূল্য প্রায় ৩৬ কোটি টাকা।

৪৯ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের (বিজিবি) অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আরিফুল হক জানিয়েছেন, স্বর্ণ পাচার হবে এমন একটি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে শিকারপুর বিওপিতে কর্মরত হাবিলদার মো. মুকুল হোসেন প্রামানিকের নেতৃত্বে একটি দল অভিযানে যান। সেখানে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষার পর গভীর রাতে সীমান্তের মেইন পিলার ২৯ থেকে প্রায় ৩০০ গজ বাংলাদেশের ভেতরে নারিকেলবাড়িয়া এলাকায় মহিউদ্দিনকে নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে।

আরিফুল জানান, আটক মহিউদ্দিনের কাছ থেকে প্রায় ৭৩ কেজি ওজনের ৬২৪টি সোনার বার এবং একটি রাম-দা উদ্ধার হয়। আটক স্বর্ণের বারগুলো বেনাপোল কাষ্টমস হাউজে জমা দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে শার্শা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে শুক্রবার ভোরে যশোরের বেনাপোল বাজারে অভিযান চালিয়ে আরও ২ কেজি ওজনের ১১টি স্বর্ণের বারসহ দুজনকে আটক করেছে বিজিবি। আটককৃতরা হলেন- বেনাপোলের দৌলতপুর গ্রামের কাশেম আলীর স্ত্রী সফুরা খাতুন (৬২) ও ভবারবেড় গ্রামের ইব্রাহিমের ছেলে ইস্রাফিল (২২)। এ ব্যাপারে বেনাপোল থানায় একটি মামলা হয়েছে।