বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের বৈঠক থেকে সরাসরি হোয়াটসঅ্যাপে কানেক্ট করা হয়েছিল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে। মঙ্গলবার রাতে নবগঠিত যুক্তফ্রন্ট চেয়ারম্যান বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বাসায় চলছিল এই বৈঠক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। তার মোবাইল ফোন থেকেই লন্ডনে কানেক্ট করা হয়েছিল তারেক রহমানকে। এর মাধ্যমে সরাসরি মিটিংয়ের আপডেট পাচ্ছিলেন তিনি। আর এ ঘটনা জানাজানি হয়ে গেলে বৈঠকে বচসা বেঁধে যায়। তাতে স্থগিত করা হয় বৈঠক। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকের মধ্যেই খবর আসে লন্ডনে তারেক রহমানের কাছে বৈঠকের আপডেট যাচ্ছে সরাসরি। এ নিয়ে শুরু হয় হৈচৈ। বি চৌধুরী বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ও জানতে চান কে পাঠাচ্ছে তারেক রহমানকে খবর- এমন সরাসরি।

অল্পতেই জানা যায়, কাজটি করছিলেন বিএনপির নেতা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। এ সময় বি. চৌধুরী বিষয়টিতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। আর এমন একটি ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর বৈঠক স্থগিত করার প্রস্তাব দেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের প্রধান আ স ম আবদুর রব। ফলে বৈঠক শেষ হয়ে যায়। বৈঠকের সময় রাষ্ট্রপতির বাসায় উপস্থিত একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, উপস্থিত নেতাদের মধ্যে একজনের ফোন বৈঠককালীন সময়ে লন্ডনের একটি নম্বরে যুক্ত ছিল এমন তথ্য পরিবারের একজন মাহি বি. চৌধুরীকে জানিয়ে দেন। এরপর তিনি বি. চৌধুরীকে বিষয়টি অবহিত করেন। পরে বৈঠক কক্ষে ঢুকে মাহি বি. চৌধুরী লন্ডনের একটি ফোনে কারও ফোন যুক্ত থাকার তথ্য জানালে বি. চৌধুরী সব ফোন বন্ধ করে বাইরে রেখে দেওয়ার জন্য নেতাদের অনুরোধ করেন। বিষয়টি নিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ‘এটা তো আলাপের বিষয় না। আজকে স্টিয়ারিং কমিটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বি.চৌধুরী চাইছেন বিএনপির দাবিগুলো কী আসে, সেটা দেখার পর এ বিষয়ে আলাপ হবে।’

যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার একাধিক নেতার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তারা মন্তব্য করতে রাজি হননি। বারিধারায় বি চৌধুরীর বাসায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে জেএসডির সভাপতি আসম রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বিকল্প ধারার যুগ্ম মহাসচিব মাহী বি চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার উমর ফারুক, নাগরিক ঐক্যের ডা. জাহেদ উর রহমান, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আবম মোস্তফা আমীনসহ আরও কয়েকজন উপস্থিত ছিলেন।

এ বৈঠকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের প্রতিনিধি হিসেবে পর্যবেক্ষক হিসেবে অংশ নেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। সাংবাদিকদের তিনি জানিয়েছেন, ২২ সেপ্টেম্বর সমাবেশের মধ্য দিয়ে যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, বিএনপি আশা করে এ প্রক্রিয়া এগিয়ে যাবে।