কিশোরগঞ্জে ছয় বছর আগের এক জোড়া খুনের মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ২১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। জেলার তৃতীয় অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আবু তাহের মঙ্গলবার এ রায় দেন।

দণ্ডিত ২৫ আসামির সবাই রায়ের সময় কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পরপরই তাদের কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।সর্বোচ্চ সাজার আদেশ পাওয়া চার আসামি হলেন- আলামিন, মিজানুর রহমান, নাজমুল ও স্বপন মিয়া।বিচারক ২৫ আসামির সবাইকে পাঁচ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন রায়ে।২০১২ সালের ২৪ আগস্ট করিমগঞ্জ উপজেলার দেহুন্দা গ্রামের কোবাদ মিয়া ও জাকারুলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় এ মামলা করা হয়।জজ আদালতের পিপি শাহ আজিজুল হক মামলার নথির বরাতে বলেন, কোবাদ মিয়ার ভাতিজার মোবাইল ফোন চুরি হলে চোর খুঁজতে গিয়ে দ্বন্দ্ব বাধে। এর জেরে কোবাদ ও জাকারুলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত ও মারধর করে গুরুতর আহত করা হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পর তারা মারা যান।এ ঘটনায় কোবাদ মিয়ার স্ত্রী সুজাতা আক্তার থানায় ২৭ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ২৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়।পিপি আজিজুল বলেন, সাক্ষ্য-প্রমাণে ২৫ আসামির সবাইকে দোষী সাব্যস্থ করে আদালত এই রায় দিয়েছে।