দেশের মানুষ সুচিকিৎসা পাচ্ছে বলেই দেশে মৃত্যুহার কমেছে দেশকে উন্নত করার লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার শেরেবাংলা নগরে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের পুনর্বাসন ও ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ২৪৮ আসন বিশিষ্ট ছাত্রী হোস্টেলসহ বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্ধোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, স্বাস্থ্যখাতকে উন্নত ও মানসম্মত করে সারাদেশের মানুষকে সুচিকিৎসা দেয়ার ব্যবস্থা করেছে। চলমান উন্নয়ন কাজগুলো সম্পন্ন করতে প্রধানমন্ত্রী নৌকায় ভোট চান। সরকারের ধারাবাহিকতা থাকলে দেশও এগিয়ে যায়।তিনি বলেন, স্বাস্থ্যখাতকে উন্নত করে সারাদেশের মানুষের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে কাজ করছে সরকার।

প্রত্যেক বিভাগে একটি করে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্র“তিও দেন প্রধানমন্ত্রী। দেশে খাদ্য উৎপাদন বেড়েছে, তাই এখন কেউ না খেয়ে থাকে না বলে উলে¬খ করে তিনি বলেন, জনগণের পুষ্টির চাহিদা নিশ্চিত করেছে সরকার। জনগণের সার্বিক জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ।উন্নয়নের যে কাজগুলো চলছে, সেসব সম্পন্ন করতে দেশের মানুষকে নৌকায় ভোট দেয়ার আহ্বানও জানিয়েছে শেখ হাসিনা। আবারো ক্ষমতায় গেলে দেশকে আরো উন্নত করার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচনে জনগণ নিশ্চয়ই নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। কারণ যে কাজগুলো শুরু করেছি সে কাজগুলো সমাপ্ত করতে হবে। না হলে কমিউনিটি সেন্টারের মতো সব উন্নয়ন কাজ বন্ধ হয়ে যাবে। তিনি বলেন, আগামীতে নির্বাচিত না হতে পারলেও আসবো, যেসব উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন করলাম তা দেখার জন্য।

জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান (নিটোর) সম্প্রসারণ (১ম সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় নির্মিত হাসপাতাল ভবন; মিরপুরে ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ২৪৮ আসনবিশিষ্ট ছাত্রী হোস্টেল (১০ তলা ভিত বিশিষ্ট ৯ তলা ভবন); মহাখালীতে ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি’র সম্প্রসারিত (৯ তলা ভিত বিশিষ্ট) তিন তলা ভবন উদ্বোধন এবং এক্সপানশন অব ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স অ্যান্ড হসপিটাল; স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রধান কার্যালয় মহাখালী, ঢাকা’র ৩য় পর্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজ (৬-১৫ তলা নির্মাণ) ও জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের উত্তর ও দক্ষিণ ব¬কের ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণ কার্যক্রমের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান (নিটোর) সম্প্রসারণ (১ম সংশোধিত) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় নির্মিত হাসপাতাল ভবন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই হাসপাতালে উন্নত ও সুন্দর চিকিৎসা হয়। পৃথিবীর কোনো দেশের ডাক্তাররা এত সুন্দর চিকিৎসা করতে পারবেন না।প্রধানমন্ত্রী উলে¬খ করেন, সদ্য দেশ স্বাধীন হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা দিতে হবে। তখন পয়সার খুব সংকট। তারপরও মুক্তিযোদ্ধাদের ভালোভাবে চিকিৎসা দেয়ার জন্য পাঁচজন ডাক্তারকে বিদেশে পাঠিয়ে ট্রেনিং দিয়ে এনেছিলেন বঙ্গবন্ধু।

তিনি বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে অর্থনৈতিক যে ভঙ্গুর দশায় ছিল এখন আর তা নেই। আমরা এখন উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছি। দেশে প্রথম আমরাই মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় করেছি। রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও সিলেটে আরও তিনটি মেডিকল বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে। তিনি বলেন, উন্নত চিকিৎসা দেয়ার জন্য আমরা প্রয়োজনে ডাক্তার ও নার্সদের বিদেশ থেকে ট্রেনিং দিয়ে নিয়ে আসবো। শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের মানুষ এখন আর না খেয়ে থাকে না। দেশে এখন আর মঙ্গা হয় না। যে সব এলাকায় মঙ্গা হতো সে সব এলাকায় এখন শুধু সবুজ আর সবুজ। মানুষের আয়ুষ্কাল বেড়েছে। ভালো খাবার ভালো স্বাস্থ্য নিশ্চিত হলে মানুষের আয়ু বাড়ে। দেশের মানুষের জীবন ধারা উন্নয়ন হচ্ছে। রাজধানীর উত্তর-দক্ষিণ ও পূর্ব-পশ্চিম হিসেব করে রাজধানীতে হাসপাতাল নির্মাণ করা হচ্ছে। মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্যই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।