রাশিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর আর্খানগেলস্কের ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসের সদর দপ্তরে হামলা করেছে ১৭ বছর বয়সী এক যুবক। এ ঘটনায় হামলাকারী ওই যুবক নিহত হয়েছে। এছাড়া আরও তিন জন আহত হয়েছেন। সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, আজ বুধবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে এ হামলা করা হয়। প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসের (এফএসবি) সদর দপ্তরের খুব কাছেই ওই যুবক একটি ব্যাগে করে বিস্ফোরক দ্রব্য নিয়ে হামলা চালায়। বিস্ফোরণের পর ভবনটির অনেক অংশ ধসে পড়েছে।

ভবনটির সিসিটিভি ফুটেজের ছবি বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ওই যুবক হামলা করার কিছুক্ষণ আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি গ্রুপে ম্যাসেজ পোস্ট করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেন, রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস মানুষের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে তাদের ওপর নির্যাতন চালায়। ওই যুবক নিজেকে নৈরাজ্যবাদী কমিউনিস্ট হিসেবে দাবি করেন।

রাশিয়া অ্যান্টি টেরোরিজম কমিটি বলছে, প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে ১৭ বছর বয়সী ওই যুবক সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দা। বুধবার বিস্ফোরক বোঝাই একটি ব্যাগ নিয়ে এফএসবি সদর দপ্তরের খুব কাছে যায় সে। এর কিছুক্ষণ পর ব্যাগ থেকে বিস্ফোরক দ্রব্য বের করে তার বিস্ফোরণ ঘটায়। তবে ওই যুবকের ব্যাগে কী ধরনের বিস্ফোরক ছিল তা জানা যায়নি। হামলার সঠিক কারণ না জানা গেলেও আর্খানগেলস্কের গভর্নর ইগোর ওরলভ এই হামলাকে সন্ত্রাসী হামলা বলে অভিহিত করেছেন। রাজধানী মস্কো থেকে প্রায় ১২ হাজার কিলোমিটার উত্তরে এ শহরটি অবস্থিত।