বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশনে (বিআরটিসি) দুর্নীতির বিষয়ে কঠোরভাবে জিরো টলারেন্স নীতি পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, আগামী এপ্রিলের মধ্যে বিআরটিসি’র বহরে ৬০০ বাস এবং ৫০০ ট্রাক যুক্ত হবে।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাজধানীর বিআরটিসি ভবনে সংস্থাটির কর্মকর্তা ও ডিপো ম্যানেজারদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ের সময় এ কথা বলেন।ওবায়দুল কাদের বলেন, বিআরটিসিতে দুর্নীতির বিষয়ে কঠোরভাবে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি পালন করা হবে। সংস্থার গাড়িবহর পরিচালনা, রক্ষণাবেক্ষণ এবং রাজস্ব আহরণে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে সফ্টওয়্যারভিত্তিক ডিজিটাল ব্যবস্থাপনা চালু করা হচ্ছে। এরই মধ্যে কল্যাণপুর, মতিঝিল ও গাবতলী ডিপোতে পরীক্ষামূলক ডিজিটাল ব্যবস্থাপনা শুরু হয়েছে। এতে দুর্নীতি কমার পাশাপাশি সেবার মান বৃদ্ধি পাবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বিআরটিসিকে লাভজনক করার লক্ষ্যে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করা হবে। এ লক্ষ্য অর্জনের পথে যেসব বাধা রয়েছে তা সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে দূর করা হবে।তিনি বলেন, আগামী এপ্রিলের মধ্যে ভারতীয় ঋণ কর্মসূচির আওতায় বিআরটিসি’র বহরে ৬০০ বাস এবং ৫০০ ট্রাক যুক্ত হতে যাচ্ছে। এতে একদিকে বিআরটিসি’র সক্ষমতা বাড়বে, অন্যদিকে যাত্রী পরিবহনের সুযোগও সম্প্রসারিত হবে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি (ফখরুল ইসলাম) সজ্জন মানুষ, তা ছাড়া মানুষ হিসেবেও ভালো। তিনি আসলে দলের চাহিদা পূরণ করলেন কি না, সেটা দেখবে বিএনপি। সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তিনি (মির্জা ফখরুল) দল করেন, তাই দলের পক্ষে অনেক কিছু বলছেন। তিনি তো আর বিএনপির আবাসিক প্রতিনিধির মতো বক্তব্য রাখেন না। আমি মির্জা ফখরুল ইসলামের মুখে নোংরা ভাষায় কথা শুনিনি।

মির্জা ফখরুল ইসলামকে তাঁর পদ থেকে সরানোর গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ওই দিন পলিটিক্যাল বক্তব্য দিয়েছিলাম। মহাসচিব পদে পরিবর্তন আসবে কি আসবে না, এটা বিএনপির ব্যাপার। এখানে আওয়ামী লীগের নাক গলানোর প্রয়োজন নেই। এটা আমার পাল্টা রাজনৈতিক বক্তব্য ছিল। আমি ফখরুল সাহেবের পক্ষ নিলে ভেতরে-ভেতরে তিনি পার্সনালি ঝামেলায় পড়বেন।

এ সময় মন্ত্রী বিআরটিসির জনবল বৃদ্ধির উদ্যোগ নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।মতবিনিময় সভায় বিআরটিসির চেয়াম্যান ফরিদ আহমদ ভুইয়াসহ সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও ডিপো ম্যানেজাররা উপস্থিত ছিলেন।