মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক সম্মানি ভাতা বর্তমান অপেক্ষা দ্বিগুণ ও মাসিক ভাতার সমপরিমাণ পাঁচটি উৎসব ভাতা দেওয়াসহ আট দফা দাবি জানিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা ফাউন্ডেশন।

শনিবার (৬ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে ফাউন্ডেশনের সভাপতি গাজী দেলওয়ার হোসেন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য স্বতন্ত্র ও বিশেষ ব্যবস্থায় নিয়োগ পদ্ধতি অবিলম্বে চালু করতে হবে। গণপরিবহনে বিশেষ করে ট্রেন, বিআরটিসি বাস ও লঞ্চ, স্টিমারে বিনামূল্যে যাতায়াত ব্যবস্থা করাসহ যানবাহনে সিট চিহ্নিত রাখতে হবে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের সুচিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে সেবা ও বিনা খরচে ওষুধ দেওয়াসহ যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা দিতে হবে। প্রত্যেকটি সরকারি হাসপাতালে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য নির্দিষ্ট বুথ/কাউন্টার তৈরি করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের নামে রাজধানী, সিটি করপোরেশন, পৌর এলাকা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সব গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও স্থাপনার নামকরণ করতে হবে। এছাড়া মুক্তিযোদ্ধা ফাউন্ডেশনের জন্য ঢাকা শহরে একটি বাড়ি বা জমি বরাদ্দের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) জিএম কামরুল ইসলাম, কৃষিবিদ ড. মো. শহিদুল ইসলাম, মো. নুরুজ্জামান, মো. নজরুল ইসলাম, ড. আলাউদ্দিন পিকে ও ফাউন্ডেশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কুদরত ই গণি প্রমুখ।