গাজীপুরে ভূয়া সাংবাদিক এক দম্পতিসহ ইয়াবা ব্যবসায়ী চারজনকে আটক করেছে র‌্যাব-১। এসময় তাদের কাছ থেকে ৩২ সহ¯্রাধিক পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট ও ইয়াবা বিক্রির নগদ ৮লাখ সাড়ে ৩৪ হাজার টাকা এবং মোবাইল জব্দ করা হয়েছে। বুধবার র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ সারওয়ার-বিন-কাশেম এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো- গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী পূর্ব থানার এরশাদনগর এলাকার মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রুবেল আহমেদ (৩৯), বাগেরহাট জেলার মোড়লগঞ্জ থানার সোমাদ্দারখালি এলাকার মোঃ দেলোয়ার হোসেনের ছেলে মোঃ বশির আহমেদ (২৮) ও তার স্ত্রী নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার পুরুষোত্তমপুর এলাকার মৃত আব্দুর রহিমের মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস রিবা (১৯) এবং ঝালকাঠি জেলার নলসিটি থানার বৈশাগীয়া গ্রামের জামাল হাওলাদারের ছেলে মোঃ আনিসুর রহমান (২১)।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ সারওয়ার-বিন-কাশেম জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের টঙ্গী পূর্ব থানাধীন আনারকলি রোডের রাজ্জাক প্লাজার সামনে বুধবার রাতে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছিল। এ গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-১এর সদস্যরা সেখানে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী ওই চারজনকে আটক করে। এসময় তার কাছ থেকে ৩২হাজার ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ইয়াবা বিক্রির নগদ ৮ লাখ ৩৪ হাজার ৫৪০ টাকা, মাদক ব্যবসার কাজে ব্যবহৃত ৬ টি মোবাইল ফোন, ১টি পাসপোর্ট, ১টি ব্যাংক চেক, ও অনলাইন পত্রিকার ১ টি ভূয়া আইডিকার্ড জব্দ করা হয়। জব্দকৃত ইয়াবার বাজার মূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা।

র‌্যাব’র ওই কর্মকর্তা আরো জানান, গ্রেফতারকৃত মোঃ বশির আহমেদ ও তার সহযোগী মোসাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস রিবা পরস্পর স্বামী স্ত্রী। বশির ঢাকার কাকরাইলস্থিত এশিয়ান নিউজ২৪ নামক অনলাইন পোর্টালের রিপোর্টার হিসেবে কাজ করে বলে মানুষের কাছে পরিচয় দিত। সে ওই সংবাদ মাধ্যমের ভূয়া আইডি কার্ড তৈরী করে, যাতে রাস্তায় ইয়াবার চালানসহ চলাচলের সময় সে নিজেকে সাংবাদিক বলে পরিচয় দিতে পারে।

তিনি জানান, অপর গ্রেফতারকৃত রুবেল আহমেদ মেসার্স মিম এন্টার প্রাইজ নামের একটি বেসরকারী কোম্পানীর ম্যানেজার পদে চাকুরী করেন। সে অতি স্বল্পসময়ে বড়লোক হওয়ার স্বপ্নে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। ওই কোম্পানীর মালিক জনৈক রহমান খান রাহুলের পরামর্শে সে চট্রগ্রাম থেকে সরবরাহকৃত ইয়াবার চালানটি সে বশিরকে বুঝিয়ে দিয়ে চালান বাবদ নগদ অর্থ গ্রহণ করে। এছাড়া গ্রেফতারকৃত মোঃ আনিসুর রহমান পেশায় একজন বেলুন ব্যবসায়ী। ইয়াবার চালান বহনের সে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকতো। উক্ত চক্রটি চট্টগ্রাম হতে ইয়াবা চালান ঢাকা হয়ে খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবরাহ করত। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।