আধিপত্য বিস্তার নিয়ে নোয়াখালীর চৌমুহনীতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় আহত হয়েছে অন্তত ১০ জন।গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ সংঘর্ষের সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ককটেল বিস্ফোরণ আর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের গুলি ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

এ ঘটনায় চৌমুহনী রেলগেইট এলাকায় রাস্তার দুই পাশে শত শত গাড়ি আটকে যায়। কয়েক কিলোমিটারব্যাপী যানজটের সৃষ্টি হয়ে যাত্রীরা ভোগান্তির মধ্যে পড়ে। এলাকায় এখনো উত্তেজনা বিরাজ করছে। বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ হোসেন মোল্লা বলেন, আগের একটি তুচ্ছ বিষয় এবং এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের সূত্রপাত হতে পারে। এ নিয়ে আগে একাধিকবার সালিশও হয়েছে কিন্তু সমাধান হয়নি।

গতকাল সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের উভয় পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। তখন ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে এক পক্ষ অপর পক্ষের ওপর ককটেল নিক্ষেপ করে। চৌমুহনি রেলগেইটের পাশের ফলের দোকান, মাছের আড়তসহ অন্তত ছয়টি দোকান ভাঙচুর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১০টি ফাঁকা গুলি করে বলে জানান ওসি ফিরোজ হোসেন মোল্লা। তিনি আরো বলেন, বেগমগঞ্জ থানার পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হলে জেলা শহর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ আনা হয়।