গাজীপুরের কালিয়াকৈর পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত হয়েছে। এঘটনায় পুলিশের ৫ সদস্য আহত হয়েছে। নিহতের নাম লিয়ন সিদ্দিকী (৩৮)। সে কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর এলাকার শফিউদ্দিন সিদ্দিকীর ছেলে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আলমগীর হোসেন মজুমদার জানান, গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার হত্যা ও মাদক মামলার আসামী সন্ত্রাসী লিয়নকে সোমবার রাতে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ি এলাকা থেকে আটক করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারের জন্য কালিয়াকৈর থানা পুলিশের একটি দল তাকে নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায়। একপর্যায়ে রাতে পুলিশের দলটি কালিয়াকৈরের সিনাবহ এলাকায় গেলে লিয়নকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য তার বাহিনীর সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে। এসময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলির একপর্যায়ে লিয়ন বাহিনীর সদস্যরা পিছু হটে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ সেখানে তল্লাশি চালিয়ে লিয়নকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। পুলিশ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় লিয়নকে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে লিয়নকে মৃত ঘোষণা করেন হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে। এঘটনায় পুলিশের ৫ সদস্য আহত হয়েছে। আহত পুলিশ সদস্যদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান, লিয়ন শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে খুন, সন্ত্রাস, মাদক ও চাঁদাবাজীসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১৭টি মামলা রয়েছে। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।