জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) মওলানা ভাসানী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১০ রাউন্ড গুলিবর্ষণের শব্দ পাওয়া গেছে।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলায় খাবার দোকানে ধাক্কা লাগাকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত হয়প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সংঘর্ষের শুরুতে উভয় হলের শিক্ষার্থীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। চলে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ এবং ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। এক পর্যায়ে বঙ্গবন্ধু হলের শিক্ষার্থীরা গুলি চালান। প্রায় ১০ রাউন্ড গুলির শব্দ পাওয়া যায়। অন্যদিকে, ভাসানী হলের শিক্ষার্থীর হাতে চাপাতি নিয়ে ঘুরতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় প্রায় ৩০ শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

এদিকে, মারামারির ঘটনা ভিডিও করার কারণে ক্যাম্পাসে কর্মরত এক সাংবাদিককে মারধর করা হয়। পরে অন্য সাংবাদিকরা তাঁকে উদ্ধার করেন।ঘটনার সময় প্রক্টরিয়াল টিমকে নিষ্ক্রিয় ভূমিকা পালন করতে দেখা গেছে। প্রক্টরিয়াল টিমের তিন সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মারামারি ঠেকানোর চেষ্টা না করে উল্টো ভিডিও ধারণ করতে থাকেন। প্রায় আধা ঘণ্টা পর প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান ঘটনাস্থলে আসেন। এ সময় তাদের সামনেই চাপাতি নিয়ে ঘুরতে দেখা যায় ভাসানী হলের শিক্ষার্থীদের।