গাজীপুরে ভুয়া র‌্যাব ও কর্ণেল পরিচয় দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।গ্রেফতার কৃতের নাম মোঃ সায়েদুজ্জামান(৫৭)। সে চাপাইনবাবগঞ্জ জেলা সদরের চান্দলাই গ্রামের মৃত আলহাজ জিল্লার রহমানের ছেলে। সে র‌্যাব ও কর্ণেল পরিচয় দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

গাজীপুর র‌্যাব-১পোড়াবাড়ী ক্যাম্প স্পেশালাইজড কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে গাজীপুর র‌্যাব-১এর সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুর সদর থানাধীন জোলারপাড় এলাকায় নিয়াউদ্দিন এর বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করেন।তারা আগে থেকে জানতে পান সেখানে সেনাবাহিনীর কর্ণেল পরিচয়ে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র প্রতারণা করার জন্য অবস্থাান করতেছে।পরে র‌্যাব সদস্যরা সায়েদুজ্জামানকে প্রতারণার সময় হাতেনাতে গ্রেফতার করেন। এসময় আসামীর কাছ থেকে ২টি ভূয়া কর্ণেল পদবীর (সেনা ও র‌্যাব) এর আইডি কার্ড, সোনালী ব্যাংক ও ফার্ষ্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিঃ এর ৭টি চেক ঊন, ১টি ৭.৬৫ এমএম পিস্তল সাদৃশ্য লাইটার পিস্তল এবং ৪ টি মোবাইল ফোনসহ নগদ ৩ হাজার ২‘শ ১৮ টাকা উদ্ধার করা হয়। ধৃত সায়েদুজ্জামান র‌্যাবকে জানায়, সে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একজন অবসর প্রাপ্ত ওয়ারেন্ট অফিসার। ২০১১ সালে সে স্বাভাবিক চাকুরী হতে অবসর গ্রহণ করে। সে দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্ণেল এবং র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিয়ে বাংলাদেশ সেনা, নৌ, বিমান, পুলিশ, বিজিবিসহ দেশের বিভিন্ন সরকারী অফিসে চাকুরী দেয়ার নামে সাধারণ মানুষের বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে তাদের কাছ থেকে অভিনব কায়দায় প্রতারণার মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। উদ্ধারকৃত আলামতসহ আসামীকে থানায় হস্তান্তরের ব্যবস্থাা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে র‌্যাবের ওই কমান্ডার জানান।