গাজীপুরে এক কিশোরীকে গণধর্ষণ ও ভিডিও চিত্র ধারণের অভিযোগে মূলহোতা এক যুবককে আটক করেছে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা। তার নাম মোঃ হৃদয় হোসেন(২২)। সে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বাসন থানার মোঃ বিল্লাল হোসেনের ছেলে। সোমবার র‌্যাব-১’র স্পেশালাইজ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন এ তথ্য জানিয়েছেন।

র‌্যাব-১ এর কোম্পানী কমান্ডার জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নগপাড়া এলাকায় গত ৩ জুলাই এক কিশোরীকে (১৪) তুলে নিয়ে আটক একটি ঘরে আটকে রাখে ক’যুবক। সেখানে কিশোরীর হাত, পা ও মুখ বেঁধে হৃদয় হোসেনসহ ৪/৫জন যুবক পালাক্রমে গণধর্ষণ করে। ধর্ষকরা এসময় ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে। পরবর্তীতে ওই ভিডিও চিত্র কিশোরীর স্বজনদের কাছে প্রেরণ করে। এ ঘটনা প্রকাশ না করার জন্য ধর্ষকরা কিশোরী ও তার পরিবারকে ভয়ভীতি দেখায় এবং প্রাণনাশের হুমকি দিতে থাকে। এব্যাপারে ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরীর পরিবার র‌্যাব-১ এর কাছে অভিযোগ দায়ের করে। রবিবার সন্ধ্যায় গণধর্ষণের মূলহোতা হৃদয় হোসেন বারবৈকা এলাকায় অবস্থান করছিল। এ গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-১’র স্পেশালাইজ কোম্পানী পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুনের নেতৃত্বে র‌্যাব সদস্যরা সেখানে অভিযান চালিয়ে হৃদয় হোসেনকে আটক করে।

র‌্যাব-১ এর ওই কর্মকর্তা আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদে আটক যুবক গণধর্ষণের ঘটনা স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে একাধিক ধর্ষণ মামলাসহ ডাকাতি এবং মাদকের মোট ৫টি মামলা রয়েছে। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।