ইয়েমেনে সামরিক আগ্রাসন চালাতে গিয়ে সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান বিপাকে পড়ে গেছেন। এ জন্য তিনি আবারও যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য চেয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী দৈনিক নিউইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইয়েমেন ইস্যুতে মোহাম্মদ বিন সালমান আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ চাপের মুখে রয়েছেন।

নিউইয়র্ক টাইমসের বরাত দিয়ে পার্স টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দীর্ঘ চার বছরের বেশি সময় ধরে দারিদ্র্যপীড়িত ইয়েমেনের ওপর সৌদি আরব জোটবদ্ধভাবে সামরিক আগ্রাসন চালালেও এখন পর্যন্ত লক্ষ্য হাসিল করতে পারেনি। ইয়েমেনের পলাতক প্রেসিডেন্ট আবদুরাব্বু মনসুর হাদিকে ক্ষমতায় পুনর্বহাল ও হুথি আসনারুল্লাহ আন্দোলনকে নির্মূল করা ছিল সৌদি যুবরাজের এ সামরিক আগ্রাসনের প্রধান দুটি লক্ষ্য।

কিন্তু লক্ষ্য অর্জনে সফল না হতে পেরে হতাশ সৌদি যুবরাজ যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বাড়তি সাহায্য চেয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কূটনীতিক এ তথ্য দিয়েছেন বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের কাছে সৌদি যুবরাজের কাঙ্ক্ষিত সাহায্যের মধ্যে রয়েছে, গোয়েন্দা সহযোগিতা ও মার্কিন স্পেশাল ফোর্স মোতায়েনের দাবি। ইয়েমেন আগ্রাসনের শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্র সৌদি আরবকে অস্ত্র ও রসদ দিয়ে সহযোগিতা করে আসার অভিযোগ রয়েছে।