রাজধানী ঢাকার যানজট নিরসনে বিশেষজ্ঞদের দিয়ে একটি মাস্টার প্ল্যান তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আগামী তিন মাসের মধ্যে ওই মাস্টার প্ল্যান প্রতিবেদন আকারে দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

জনস্বার্থে দায়ের করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে রোববার (২১ জুলাই) বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইশরাত হাসান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করিম।

এর আগে গত ১৬ মে রাজধানী ঢাকার যানজট দূর করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন আইনজীবী ইশরাত হাসান।

রিটে যানজট দূর করার জন্য বিশেষ টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশনাও চাওয়া হয়। এছাড়াও রাজধানীতে যানজট দূর করতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন জানানো হয়।ওই রিটে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব, সড়ক, পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সচিব, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সচিব, অর্থ মন্ত্রণালয় সচিব, পরিবেশ মন্ত্রণালয় সচিব, রাজউকের চেয়ারম্যান, ঢাকা সিটির দুই মেয়র, পুলিশের আইজিসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে যানজটে বছরে ক্ষতি ৩৭ হাজার কোটি টাকা শিরোনামে গণমাধ্যমে সংবাদ একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যানজটের কারণে রাজধানীতে একটি যানবাহন ঘণ্টায় যেতে পারে গড়ে ৫ কিলোমিটার।১২ বছর আগেও এই গতি ছিল ঘণ্টায় ২১ কিলোমিটার। ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকে থাকার ফলে যাত্রীদের মানসিক চাপ তৈরি হচ্ছে। এই চাপ আবার কাজ করছে অন্যান্য রোগের উৎস হিসেবে। পাশাপাশি যানজটের কারণে শুধু ঢাকায় দৈনিক ৫০ লাখ কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে, যার আর্থিক ক্ষতি বছরে প্রায় ৩৭ হাজার কোটি টাকা। যানজটের পরিস্থিতি দিন দিন যেভাবে খারাপ হচ্ছে, তাতে আর্থিক ক্ষতির পরিমাণও যে বাড়বে, তা বলা বাহুল্য।পরে ওই প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হাইকোর্টে জনস্বার্থে রিট দায়ের করা হয়।