‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি’ এর অংশ হিসেবে খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি এপিবিএন আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণি শিক্ষার্থীরা শিক্ষক/শিক্ষিকাদের সহায়তায় বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ এর সমাধিস্থল পরিদর্শন করেছে। এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর মহালছড়ির দুইজন বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জহিরুল ইসলাম ও কালা সাদু বণিক এর সাক্ষাৎকার নেয় সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা।
আজ ৫ অক্টোবর ( শনিবার ) সকাল ৯ টার সময় মহালছড়ির চেংগি ব্রিজের বোট ঘাট থেকে দুটি বোট যোগে রাঙ্গামাটির জেলার নানিয়ারচর উপজেলায় বুড়িঘাট নামক এলাকায় বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ এর সমাধিস্থলে পৌঁছায় এপিবিএন স্কুলের শিক্ষার্থীরা।

সেখানেই শিক্ষক ও শিক্ষিকা কতৃক ছাত্র-ছাত্রীদেরকে বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ এর মুক্তিযুদ্ধে যে অবদান তা উপস্থাপন করা হয়। বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারী একজন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে চরম সাহসিকতা আর অসামান্য বীরত্বের স্বীকৃতিস¦রূপ তিনি বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সামরিক সম্মান “বীরশ্রেষ্ঠ” উপাধিতে ভ’ষিত হন। বাংলাদেশ রাইফেলস ১৯৭৩ সালে তাকে অনরারি ল্যান্স নায়েক পদে মরণোত্তর পদোন্নতি প্রদান করে। তিনি ১৯৪৩ সালে ১ মে ফরিদপুরের সালামতপুরে জন্মগ্রহন করেন। ১৯৬৩ সালের ৮ মে পূর্ব পাকিস্তান রাইফেলসে যোগদান করেন এবং মুক্তিযুদ্ধের সময়ে তিনি নিয়মিত পদাতিক সৈন্য হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ রাঙ্গামাটি জেলার নানিয়ারচর উপজেলায় বুড়িঘাট গ্রামে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সঙ্গে সম্মুখ সমরে ১৯৭১ সালের ৮ এপ্রিল মর্টারের আঘাতে শহীদ হন। সেখানেই তাকে সমাহিত করা হয়।

উল্লেখ্য যে, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর কতৃক জারিকৃত ১৮ জুলাই ২০১৯ এর পরিপত্রের আলোকে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধকে জানি’ এর অংশ হিসেবে মহালছড়ি এপিবিএন আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজে উক্ত প্রোগ্রাম পরিচালিত হচ্ছে।

কলিন, (খাগড়াছড়ি) মহালছড়ি প্রতিনিধি