মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি বলেছেন, আমরা নিরপেক্ষভাবে সততা ও ন্যায়ের সঙ্গে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করব, দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করব। যেখানে দুর্নীতি আছে, সরকার সেখানে হাত বাড়িয়ে তা নির্মূল করবে। কারণ দুর্নীতির শিকড় অনেক গভীরে। তাই দুর্নীতি সমূলে উপড়ে ফেলতে আমরা সবাই সচেষ্ট থাকবো। দেশের মানুষ যাতে সুখে শান্তিতে বসবাস করতে পারেন তা নিশ্চিত করবো।

মন্ত্রী শনিবার সকালে কমিউনিটি পুলিশিং ডে উদযাপন উপলক্ষে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্যোগে চান্দনা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ প্রাঙ্গণে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও সহকারী পুলিশ কমিশনার আশরাফুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এম পি শামসুন নাহার ভূঁইয়া, র‌্যাব এর মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আখতারউজ্জামান, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান, সাবেক এমপি কাজী মোজাম্মেল হক, জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহামাদ সরকার, সিটি কাউন্সিলর মাওলানা মনজুর হোসেন প্রমুখ।

মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক বলেন, যারা দুর্নীতি ও অনৈতিক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তাদের কাউকে ক্ষমা করবেন না। যারা বিপথগামী হয়েছে তিনি তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। এমনকি ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের যারা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত তিনি তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে কার্পণ্য করছেন না। এটা যেমন নিজের দলের প্রতি মেসেজ, তেমনি অন্যান্যদের জন্য মেসেজ।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ছিটমহলে ভ’মির অধিকার রক্ষা করেছেন, তিনি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট পাঠিয়ে আকাশে অধিকার সমুন্নত রেখেছেন, তিনি সমূদ্র বিজয় করে জলসীমায় অধিকার সুনিশ্চিত করেছেন। তিনি ভ’মি,সমূদ্র, আকাশ সবত্র আমাদের অধিকার সমুন্নত করেছেন।

র‌্যাব’র মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতি- এই চারটি দানবের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই। এসব দানব নির্মূলে আমাদের অভিযান চলছে, এ অভিযান চলামান থাকবে। যারা নোংরা রাজনীতি করে, টাকার পেছনে দৌঁড়ায় তাদের আপনারা পরিহার করুন। এসব আমাদের সমাজ জীবনকে কলুষিত করছে। এদের উপড়ে ফেলতে হবে।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, আমরা অনেক প্রতিশ্রুতি দেই, ভালো ভালো কথা বলি, কিন্তু সেগুলো বাস্তবায়ন করি না। আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আর্দশের কথা বলি, আদর্শ লালনের কথা বলি কিন্তু সেগুলো পালন করি না। প্রধানমন্ত্রী মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন, এগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছেন। মেয়র আরো বলেন, কোন না কোনভাবে মহানগরীর কাউন্সিলররা মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকেন তবে তাদের বিরুদ্ধে সিটি আইন আনুযায়ি সর্ব্বোচ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্প্রতি ক’মাদক ব্যবসায়ী মাদক ব্যবসা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসায় অনুষ্ঠাণে তাদেরকে পুরষ্কার দেওয়া হয়।