সাকিবকে ছাড়ের প্রশ্নই আসে না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। আজ শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে গ্রামীনফোনের চুক্তি বিষয়ে পাপন এ মন্তব্য করেন।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘চুক্তি করা যাবে না এটা টেলিকম কোম্পানিও জানে, প্লেয়াররাও জানে। তবে সাকিবকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়া হবে। এটা সম্পূর্ণ বেআইনি, সাকিবকে ছাড়ের কোনো প্রশ্নই আসে না।’

ক্রিকেটারের ডাকা ধর্মঘটের পরের দিন অর্থাৎ মঙ্গলবার টেলিকম কোম্পানি গ্রামীণফোনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন সাকিব আল হাসান। বিসিবির আইন অনুযায়ী, অনুমতি না নিয়ে কোনো খেলোয়াড় এ ধরনের চুক্তি করতে পারবে না। অপর টেলিকম কোম্পানি রবি বাংলাদেশ দলের স্পন্সর হওয়ার পর একটি আইন করে বিসিবি। তা হলো- কোনো খেলোয়াড় যদি টেলিকম কোম্পানিগুলোর সঙ্গে চুক্তি করতে চান তবে বোর্ড থেকে অনাপত্তিপত্র নিতে হবে। কিন্তু সাকিব অনাপত্তিপত্র নেননি। এমনকি বোর্ডের কাউকেই অবহিত করেননি। এতেই ক্ষেপেছেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট।

নাজমুল হাসান পাপন গতকাল এক সাক্ষাতকারে বলেছিলেন, ‘লিখিতভাবে ওদের বলে দেওয়া আছে। রবি আমাদের টাইটেল স্পন্সর হলো। গ্রামীণ বিড-ই করল না। না করে এক-দুই কোটি দিয়ে খেলোয়াড়দের নিয়ে ফেলল। এতে শেষ পর্যন্ত কী হলো? তিন বছরে বোর্ডের ৯০ কোটি টাকা লস হলো। খেলোয়াড় লাভবান হলো। কিন্তু বোর্ডের তো ১২টা বেজে গেল। এটি তো হতে পারে না। তাই লিখিতভাবে ওদের জানিয়ে রাখা আছে। এমনকি আমার জানা মতে, মন্ত্রণালয় থেকেও ওদের বলা আছে যে না জানিয়ে টেলকোর সঙ্গে চুক্তি করা যাবে না। আমাদের সঙ্গে চুক্তি তো আছেই। তারপরও আমাদের না জানিয়ে কী করে চুক্তি করে? টাইমিংটা দেখুন। খেলা বন্ধ করে চুক্তি! এগুলো তো ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ।’