প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘আমরা বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে স্বশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিক বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করে যাচ্ছি।’ তিনি আজ রোববার সকালে মিরপুরের সামরিক বাহিনী কমান্ড ও স্টাফ কলেজে গ্রাজুয়েশন সম্পন্নকারীদের মধ্যে সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে একথা বলেন। সশস্ত্র বাহিনীর প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী জানান, দুর্যোগ মোকাবেলাসহ সব কাজে সুনাম অর্জন করেছে সশস্ত্র বাহিনী। জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে বাংলাদেশের সামরিক বাহিনী ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছে। শেখ হাসিনা বলেন, ‘শুধু সামরিক অফিসার হিসেবে নয়, মানবিক গুণাবলীর কারণে বাংলাদেশের সেনারা মানুষের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছে।’

সরকারপ্রধান জানান, বিগত ১০ বছর ক্ষমতায় থাকায় দেশের আর্তসামাজিক উন্নতির পাশাপাশি সামরিক বাহিনীকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করে গড়ে তোলার চেষ্টা চালিয়েছেন তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী কোর্স উত্তীর্ণকারী সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন।

এবছর বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১২৫ জন অফিসার, নৌবাহিনীর ৩৪ জন অফিসার ও বিমান বাহিনীর ২২ জন অফিসার ডিএসসিএসসি কোর্সে উত্তীর্ণ হয়েছেন। এছাড়া চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, কুয়েত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, নাইজেরিয়া, পাকিস্তানসহ কয়েকটি দেশের ৫৪জন সেনা কর্মকর্তার হাতে সনদ তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০১৯-২০২০ কোর্সে মোট ২৩৫ জন কর্মকর্তা গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেছেন।