নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে জেলা পরিষদের সদস্য মোশারফ হোসেনের পিতা আলহাজ্ব মজিবর রহমানের (৮০) মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (১ জুন)ভোরে নিজবাড়িতে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।মৃতর বাড়ী জলঢাকা উপজেলার গোলমুন্ডা ইউনিয়নের তিলাই গ্রামে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জলঢাকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডাঃ আবু হাসান রেজওয়ানুল কবীর।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নিহত মজিবর রহমানের সহধর্মিণী কয়েকদিন আগে রংপুর মেডিকল কলেজে ক্যান্সারের চিকিৎসা করতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হন। করোনা রোগীর সংস্পর্শে আসায় গত ২৭মে ঐ পরিবারের ১৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে জলঢাকা স্বাস্থ্য বিভাগ।গত ৩০ মে শনিবার নিহত মজিবর রহমানসহ নাতী বউয়ের করোনা পজেটিভ আসে। এরপর থেকে পরিবারের ৩ সদস্যকে নিজবাড়িতে আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোরে তিনি ইন্তেকাল করেন। তিনি হাই পেসারের রোগী ছিলেন।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আরো জানান, এ পর্যন্ত উপজেলায় মোট আক্রান্ত ১৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। এর মধ্যে ৪জন সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন। দুই জন নীলফামারী সদর হাসপাতাল ও ১জনকে জলঢাকা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। একজন করোনা নিয়ে ঢাকায় কর্মরত আছে এবং বাকি ৩জনকে হোম আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। উল্লেখ্য:-জেলায় এ নিয়ে ১২৯জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে ৩জন মৃত্যুবরন করলেন। ৩৮জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে নিজ-নিজ বাড়ি ফিরেছেন।

 

সুজন মহিনুল,বিশেষ প্রতিনিধি