দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। সবেচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা রাজধানী ঢাকায়। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন আরও ৪৫ জন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩৮৮ জনের। আর গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৪৩ জন। এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫ হাজার ৫৩৫ জন।

শুক্রবার (১৯ জুন) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি আরও বলেন, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ৪৫টি। আর গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ হাজার ৩২৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ৫ লাখ ৮২ হাজার ৫৪৮টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭৮১ জন। এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৪২ হাজার ৯৪৫ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা হলো— মিরপুর এলাকা ১,৫৮১, উত্তরা ৬৭৬, মোহাম্মদপুর ৫৯২, মহাখালী ৫২২, মুগদা ৫০১, যাত্রাবাড়ী ৪৮৪, ধানমন্ডি ৪৬৯, মগবাজার ৩৩৩, তেজগাঁও ৩১৫, কাকরাইল ৩০৪, রামপুরা ২৯৬, খিলগাঁও ২৯৩, লালবাগ ২৭০, বাড্ডা ২৬৪, গুলশান ২৩৮, রাজারবাগ ২৩০, মালিবাগ ২০৮, বাসাবো ১৮৬, গেন্ডারিয়া ১৭৩, বাবুবাজার ১৬২, ওয়ারী ১৫৪, আগারগাঁও ১৪০, বংশাল ১৩৭, শ্যামলী ১৩৫, শাহবাগ ১২৯, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা ১২৯, ডেমরা ১১৮, আজিমপুর ১১৬, আদাবর ১১৫, হাজারীবাগ ১১৫, বনানী ১১৩, বনশ্রী ১১১, পল্টন ১০৮, শান্তিনগর ১০৫, রমনা ১০৫ ও পোস্তগোলা ৫ জন।

উল্লেখ্য, দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্তের ঘোষণা দেয় আইইডিসিআর। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।