করোনা রোগীদের চিকিৎসা হচ্ছে দেশের এমন সাতটি হাসপাতালে চীনের তৈরি ভ্যাকসিনের তৃতীয় ধাপের ট্রায়াল (পরীক্ষামূলক প্রয়োগ) চালানোর অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশ মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিল (বিএমআরসি)।

রোববার (১৯ জুলাই) বিএমআরসি চেয়ারম্যান ডা. মাহমুদ-উজ-জামান বলেন, আগস্ট থেকে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল শুরু করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রের (আইসিডিডিআর’বি) তত্ত্বাবধায়নে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে। দেশের সাতটি হাসপাতালে ৪ হাজার ২০০ রোগীর ওপর ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চালানো হবে।

সাতটি হাসপাতাল হলো- মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইউনিট-১ ও ইউনিট-২, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ গভর্নমেন্ট হাসপাতাল এবং মহানগর হাসপাতাল।

চীন বলছে, চলতি বছরের শেষ দিকে অথবা সামনের বছরের শুরুতে সিএনবিজির ভ্যাকসিন বাজারজাত করা হবে। ইতোমধ্যে দেশটির কর্মকর্তারা কথা দিয়েছেন প্রথম যে দেশগুলো ভ্যাকসিন পাবে, বাংলাদেশ তার ভেতর থাকবে। এদিকে, গত মার্চ থেকে বাংলাদেশের করোনাভাইরাসের বিভিন্ন ওষুধের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করা হচ্ছে।