চলতি বছরের পবিত্র হজ শেষ হয়েছে। গতকাল রোববার (২ আগস্ট) জামারায় পাথর নিক্ষেপের পর কাবা প্রাঙ্গণে এসে বিদায়ী তাওয়াফ করেন হাজিরা। কাবার চারপাশে সাতবার বিদায়ী তাওয়াফের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এ বছরের পবিত্র হজ। খবর আরব নিউজের।

নির্ধারিত দরজা দিয়ে গ্র্যান্ড মসজিদে প্রবেশ করেন হাজিরা। এসময় তারা নির্ধারিত নিরাপদ দূরত্ব মেনে দাগ দেয়া পথ মেনে তাওয়াফ করেন। সৌদির হজ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, পাঁচদিন ব্যাপী এই হজ কার্যক্রমের সময় কোনও হাজি আক্রান্ত হননি। সৌদির হজ ও ওমরাহ বিষয়ক ডেপুটি মন্ত্রী ড. আব্দুলফাত্তাহ বিন সুলাইমান মাশাত বলেন, হজের সব রীতিনীতি শেষ হয়েছে। এখন হাজিদের মেডিকেল পরীক্ষা করা হবে। সৌদি আরবে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৭৮ হাজার ৮৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে।

এদিকে হজ শুরু হওয়ার সাতদিন আগে থেকেই হাজিদের হোম আইসোলেশনে রাখা হয়। এখন হজ শেষে তাদের আবারও হোম আইসোলেশনে থাকতে হবে। ব্যতিক্রমী এই হজে হাজিদের নিরাপদ রাখতে কঠোর সতর্কতা অবলম্বন করে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

মাশাত বলেন, হজযাত্রীদের প্রত্যেক পদক্ষেপের ব্যাপারে বিশদ পরিকল্পনা নেয়া হয়েছিল, তবে মূল ফোকাস ছিল কীভাবে কার্যকরভাবে চিকিত্সা সতর্কতা এবং প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা প্রয়োগ করা যায়। এই প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা এবং প্রচেষ্টার মাধ্যমে সৌদি সরকার এই বার্তা দিতে চেয়েছে যে, মানুষের স্বাস্থ্যই দেশটির সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের কারণে এবার সীমিতাকারে হজ অনুষ্ঠিত হয়। কত মানুষ এবারের হজে অংশ নিয়েছে সেটা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়নি সৌদি কর্তৃপক্ষ। তবে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, সৌদি আরবে বসবাসকারী ১৬০ দেশের ১০ হাজার মানুষ হজ পালন করেছে।