কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেল কিংস থেকে কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মজিবুর রহমান সহ ৫ জুয়ারীকে আটক করেছে মহিপুর থানা পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহিপুর থানার এস আই আসাদুজ্জামান জুয়েলের নেতৃত্বে কুয়াকাটার আবাসিক হোটেল কিংস থেকে জুয়া খেলা অবস্থায় কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মজিবুর রহমান (২৯), মহিপুরের সামসুল হক মুন্সির ছেলে কলিম মাহামুদ (৩২), মহিপুুরের আলমগীর হাওলাদারের ছেলে চিহ্নিত জুয়ারি রবিউল (২৭), মহিপুর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের ইউসুফ আলী নায়েবের ছেলে জুয়ারি গোলাম মাওলা (৩০), ও দুমকির পাঙ্গাশিয়ার জালাল খানের ছেলে কুয়াকাটা বনানী প্যালেসের ম্যানেজার শাহিন খান (৩৫) কে নগদ টাকা ও জুয়া খেলার সরঞ্জামসহ গ্রেফতার করা হয়। জুয়ারীরা এসময পুলিশের কাজে বাধা প্রদান করলে ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়।
আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন মহিপুর থানার এস আই আসাদুজ্জামান জুয়েল, এস আই মনির হোসেন, কনেষ্টবল ইব্রাহিম, কনেষ্টবল নজরুল।

পটুয়াখালী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ওমর ফারুক ভুইয়া জানান, এটি একটি ষড়যন্ত্র মুলক ঘটনা, তাদেরকে নিয়ে যাবার সময় পুলিশের সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। তবে এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান তিনি। মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাজে বাধা প্রদান ও জুয়ারী আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং তাদেরকে কলাপাড়া জুডিশিয়াল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি