দ্রুত পদক্ষেপে কৃষকের কষ্টার্জিত ৭,৫৩,০০০/- (সাত লক্ষ তিপ্পান্ন হাজার) টাকা উদ্ধার করে তাঁর পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন নওগাঁ সদর থানা পুলিশ।

জানা গেছে, নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর থানার বাসিন্দা মোঃ আজাহার উদ্দিন (৫০) পেশায় একজন কৃষক। তিনি দীর্ঘদিন থেকে তার কষ্টার্জিত জমানো টাকা রাজশাহী সোনালী ব্যাংকে সঞ্চয় করে রাখেন। পারিবারিক বিশেষ প্রয়োজনে ১৭ আগস্ট রাজশাহী সোনালী ব্যাংক হতে ৭,৫৩,০০০/- (সাত লক্ষ তিপ্পান্ন হাজার) টাকা উত্তোলন করে বাস যোগে নওগাঁয় রওনা করেন। পথিমধ্যে অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে তিনি অচেতন হয়ে পড়েন। তৎক্ষণাৎ ডিউটি অফিসারের মাধ্যমে সংবাদ প্রাপ্ত হয়ে নওগাঁ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সোহরাওয়ার্দী, পুলিশ সুপার প্রকৌশলী জনাব আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম মহোদয়ের পরামর্শক্রমে এসআই (নিঃ) মোঃ নাজমুল জান্নাত শাহ্, সঙ্গীয় এসআই (নিঃ) মোঃ আব্দুল্লাহ আল ইসলাম ও এএসআই (নিঃ) মোঃ আবু হাফিজকে সদর থানাধীন বালুডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে প্রেরণ করেন। পুলিশ দ্রুততার সাথে ঘটনাস্থলে পৌঁছার খবরে দুষ্কৃতিকারীরা ভয় পেয়ে উক্ত স্থান ত্যাগ করে। নওগাঁ সদর থানা পুলিশ উক্ত ব্যক্তিকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে সুস্থ করার ব্যবস্থা গ্রহণ করেন এবং উক্ত ব্যক্তির নিকটে থাকা একটি ব্যাগ হেফাজতে গ্রহন করেন।

পরবর্তীতে, থানা পুলিশ উক্ত ব্যক্তির নিকট প্রাপ্ত মোবাইলের সূত্র ধরে তার পরিবারকে সংবাদ প্রদান করলে তার মেয়ে এবং তার স্ত্রী উপস্থিত হন এবং সকলের সামনে ব্যাগটি খুলে সেখানে প্রাপ্ত ৭,৫৩,০০০/- (সাত লক্ষ তিপ্পান্ন হাজার) টাকা তার মেয়ের জিম্মায় প্রদান করা হয়।

এসব বিষয় নিয়ে মুঠো ফোনে কথা হয় নওগাঁ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেনের সাথে, তিনি এসব তথ্য নিশ্চিত করে এ প্রতিনিধিকে জানান, ওই বিকেলেই বালুডাঙ্গা বাস স্ট্যান্ডে উপস্থিত জনতার সামনে আজাহার উদ্দীনের মেয়ের জিম্মায় সমুদয় টাকা হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশের দ্রুত পদক্ষেপে সমুদয় টাকা উদ্ধার হওয়ায় তার পরিবারের সদস্যরা পুলিশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।