আজ শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) বসানো হলো পদ্মা সেতুর ৩৯ তম স্প্যান (২-ডি)। এটি বসানো হয় মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তের সেতুর ১০ ও ১১ নম্বর পিলারের উপর। এ স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হলো সেতুর ৫,৮৫০ মিটার। এটি বসানোর আর মাত্র বাকি থাকলো ২ টি স্প্যান। এর আগে গত ২১ নভেম্বর বসানো হয় সেতুর ৩৮ তম স্প্যান। মাত্র ৬ দিনের মাথায় বসানো হয় এ ৩৯ তম স্প্যান। যা এ মাসের শেষ স্প্যান। এটি বসানোর পর বাকি আর মাত্র ২ টি স্প্যান। আর এ ২টি স্প্যান বসবে বিজয়ের মাসে অর্থাৎ ডিসেম্বরে। এর মধ্যদিয়ে ডিসেম্বরেই স্প্যান বসানোর কাজ শেষ করার সিডিউল রয়েছে বলে জানা গেছে।

একদিকে যেমন সেতুর স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হচ্ছে। অপরদিকে সেতুর জাজিরা প্রান্তদিয়ে বসানো স্প্যানের উপর রোডওয়ে স্লাবের কাজ ও রেলওয়ে স্লাবের কাজও এগিয়ে চলেছে। পদ্মা সেতুর প্রকৌশলী(মূল সেতু) হুমায়ুন কবির জানান, আজ শুক্রবার সকাল ৯টা ১৫ মিনিটের দিকে মাওয়া কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ৩ হাজার ৬শ টন ওজন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ভাসমান ক্রেন তিয়ান-ই এর মাধ্যমে ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের ধূসর রঙ এর ১৫০ মিটার দৈর্ঘের ৩৯ তম স্প্যানটিকে নির্ধারীত ১০ ও ১১ নাম্বার পিলারের কাছে নিয়ে আসা হয়। ক্রেনটি নির্ধারীত পিলারের সামনে পৌঁছানোর পর শুরু হয় নোঙরের কাজ। তিনি আরো জানান, সবকিছু ঠিকঠাক থাকায় ১২টা ২০ মিনিটে বসানো হয় ৩৯ তম স্প্যান।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্ট্রিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড(এমবিইসি) মূল সেতুর কাজ ও নদীশাসনের কাজ করছে চীনের আরেকটি প্রতিষ্ঠান সিনো হাইড্রো করপোরেশন।