কোপা আমেরিকায় ব্রাজিলকে হারিয়ে সেমিফাইনালে ওঠেছে উরুগুয়ে। আজ রোববার অনুষ্ঠিত কোয়ার্টার ফাইনালে পেনাল্টি শ্যুটআউটে ব্রাজিলকে ৪-২ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে উরুগুয়ে। নির্ধারিত সময়ের খেলা গোলশূন্য ড্র ছিল। সেমিতে কলম্বিয়ার মোকাবেলা করবে উরুগুয়ে। অপর সেমিফাইনালে আর্জেন্টিনার মুখোমুখী হবে কানাডা।

আজকে ম্যাচে ১০ জনের উরুগুয়েকে হারাতে পারেনি ব্রাজিল। ৭৪ মিনিটের মাথায় লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন উরুগুয়ের নানডেজ। তবু গোল করতে পারেনি ব্রাজিল।

রড্রিগোকে পিছন থেকে ফাউল করেছিলেন নানডেজ। প্রথমে রেফারি তাকে হলুদ কার্ড দেখান। পরে রড্রিগোর আঘাতের গুরুত্ব বুঝে ‘ভিএআর’-এর সাহায্য নিয়ে লাল কার্ড দেখান নানডেজকে। ১০ জনের উরুগুয়েকে পেয়ে আক্রমণের ঝাঁঝ কিছুটা বাড়ায় ব্রাজিল। তবু মার্সেলো বিয়েলসার ফুটবল কৌশলের বিরুদ্ধে বিশেষ সুবিধা করতে পারেনি তারা।

প্রথম থেকেই উরুগুয়ে কিছুটা গা জোয়ারি এবং রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলতে শুরু করে। ব্রাজিলের আক্রমণগুলো বক্সের বাইরেই রুখে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিল উরুগুয়ে শিবির। ৫ মিনিটের মাথায় প্রতিপক্ষের বক্সের মধ্যে সুবিধাজনক জায়গায় বল পেয়েছিলেন ব্রাজিলের তরুণ স্ট্রাইকার এনড্রিক। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি। দু’দলই প্রথম মাঝমাঠের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার চেষ্টা করে ম্যাচের শুরু থেকেই। ব্রাজিল আগ্রাসী মানসিকতা নিয়ে নামলেও উরুগুয়ের লক্ষ্য ছিল আচমকা প্রতিআক্রমণে উঠে ব্রাজিলকে বিপদে ফেলা। ১৬ মিনিটের মাথায় এনড্রিকের বল নিয়ে বিপজ্জনক থামান ভালভার্দে। কড়া ট্যাকলে ব্রাজিল ফাউলের দাবি জানালেও কান দেননি রেফারি। তিনি খেলা চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন। প্রতিআক্রমণে গোল করার মতো জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিলেন উরুগুয়ের পেলিস্ট্রি। যদিও তার চেষ্টা সফল হয়নি।

প্রথম থেকেই উরুগুয়ের রক্ষণকে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করেছেন এনড্রিক। কিন্তু তার ফুটবল দক্ষতাকে ছাপিয়ে গিয়েছে উরুগুয়ের ফুটবলারদের শক্তিপ্রয়োগমূলক ফুটবল। প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডার ভিনার ভুলে ২৮ মিনিটে গোল করার সহজ সুযোগ নষ্ট করেন এনড্রিক। প্রথমার্ধে কোনও দলই আর তেমন সহজ সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। প্রথম ৪৫ মিনিটে খেলা শেষ হয় গোলশূন্য অবস্থায়।

ম্যাচের অধিকাংশ সময় বলের দখল ছিল ব্রাজিলের নিয়ন্ত্রণে। তবু উরুগুয়ের রক্ষণ ভেদ করে গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি তারা। প্রতিপক্ষের রক্ষণ ভাঙার জন্য মাঠের দুই প্রান্ত ব্যবহার করেও লাভ হয়নি। ৪-২-৩-১ ছকে দল সাজিয়ে ছিলেন ব্রাজিল কোচ। বার বার উরুগুয়ের বক্সে প্রায় একা হয়ে যাচ্ছিলেন এনড্রিক। ফলে সেভাবে গোলের সুযোগ তৈরি করে পারছিলেন না ব্রাজিলের ফুটবলারেরা। এমনকি উরুগুয়ে ১০ জনে হয়ে যাওয়ার পরও বিশেষ সুবিধা করতে পারেননি ব্রাজিল। এর মধ্যেই ৬৩ মিনিটে গোলের সুযোগ নষ্ট করেন ভালভার্দে। ব্রাজিলের বক্সে অন্তত চার জন সতীর্থ থাকা সত্ত্বেও দূর থেকে শট নেন তিনি।