কুয়াকাটায় মাইটভাংগা স্লুইজগেটে জাল পাতাকে কেন্দ্র করে আধিপত্য বিস্তার করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৮ জন আহত হয়েছে। শনিবার দুপুরের পর বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। সংর্ঘষে আহতরা হলেন, আলতাফ হাওলাদার (৫৫), অপু গাজী (২৬), ইমন (২২), ওহাব গাজী (৪১), শামিম খান (৩৪), ফরিদ (২৬), নেছার (১৯), হাসান (২০)। মহিপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে মামা আলতাফ হাওলাদার ও ভাগ্নে মোশারেফ অবৈধভাবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্লুইজগেট দখল করে মাছ ধরতো। সম্প্রতি আলতাফ হাওলাদারকে উৎখাত করে অপু গাজী স্লইজগেটে জাল পেতে মাছ ধরে। শনিবার দিনে কে বা কারা অপু গাজীর জাল কেটে দেয়ায় আলতাফ হাওলাদার ও তার ছেলেদের দায়ী করে গালিগালাজ করে। পরবর্তীতে আলতাফ হাওলাদারের ছেলে নেছার পানি আনতে গেলে তাকে মারধর করে অপু গাজী। এনিয়ে আকষ্মিক উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে দু’গ্রুপের ৮ জন আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে তুলাতলী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য অপু গাজী ও ফরিদকে কলাপাড়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপরদিকে প্রতিপক্ষের নেছার ও হাসানকে পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে আহতদের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মনিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সংঘর্র্ষের ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। আভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হব।

 

রাসেল কবির মুরাদ, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি