সীমানা প্রাচীর নিয়ে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে প্রতিবেশী কিশোরের ধাক্কায় তালেবুজ্জামান (৭০) নামের এক বীর মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় শাজাহানপুর উপজেলার ফুলতলা এলাকার আদর্শ পাড়ায় তাদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হলে এ ঘটনা ঘটে। এ সয়ম পরিবারের সদস্যরা তাকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা তালেবুজ্জামান শাজাহানপুর উপজেলার ফুলতলা এলাকার আদর্শপাড়ার বাসিন্দা ও নৌবাহিনীর সাবেক সদস্য। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রাকিবুল হাসান রিফাত (১৬) নামের ওই কিশোরকে শাজাহানপুর থানা পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে। সে একই এলাকার শফিকুল ইসলামের ছেলে।

নিহতের মেয়ে ফারহানা জামান ও স্বজনরা জানান, গতকার রোববার বিকেলে প্রতিবেশী শফিকুল ইসলামের পরিবারের সঙ্গে সীমানা প্রাচীর নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। বাকবিতণ্ডার সময় অভিযুক্ত রিফাত ও তার বাবা শফিকুল ইসলাম বাঁশ নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধার মেয়েকে মারতে আসেন। এ সময় মেয়েদের বাঁচাতে মুক্তিযোদ্ধা তালেবুজ্জামান এগিয়ে আসেন। একপর্যায়ে রিফাত ধাক্কা দিয়ে তাকে মাটিতে ফেলে দেয়। এ সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় আহত অবস্থায় তালেবুজ্জামানকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত কিশোরকে থানা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।